ঘিওরের সর্বজন শ্রদ্ধেয় মাওলানা ফখরুদ্দীনের (র:) ইন্তেকাল

ঘিওরের সর্বজন শ্রদ্ধেয় মাওলানা ফখরুদ্দীনের (র:) ইন্তেকাল

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট:

মানিকগঞ্জের অন্যতম পীর এ কামিল, আলেমে দ্বীন, মুফাচ্ছেরে কোরআন, বহু মাদ্রাসা-মসজিদ প্রতিষ্ঠাতা সর্বজন শ্রদ্ধেয় আলহাজ মাওলানা ফখরুদ্দীন (র:) বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে স্থানীয় মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।) তাঁর বয়স হয়েছিল ১০২ বছর। তিনি পাঁচ পুত্র, চার কন্যা, নাতি নাতনি, অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও বহু ভক্ত মুরিদান রেখে যান। তাঁর ইন্তেকালের খবরে মানিকগঞ্জ ও আশ পাশের এলাকার সর্বস্তরে শোকের ছায়া নেমে আসে।

২৫ আগস্ট বৃহস্পতিবার বেলা ১০টায় ঘিওর ডিএন হাইস্কুল মাঠে মরহুমের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন মাওলানা ফখরুদ্দিন সাহেবের পুত্র হাফেজ মাওলানা মুফতি মোঃ হেদায়েতুল্লাহ। জানাজায় অন্তত ২০ হাজার লোক শরিক হন। তাঁর নিজ গ্রাম হিজুলিয়া কবরস্থানে দাফন হয়।

জানা গেছে, তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। গত দুদিন আগে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে মুন্নু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তিনি ঘিওর উপজেলার বড়টিয়া ইউনিয়নের হিজুলিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর অন্যতম ছাত্র মাওলানা আজীজুল হক জানান, মাওলানা ফখরুদ্দীন ঢাকার বড়কাটারা মাদ্রাসায় মেশকাত শরীফ অধ্যয়ন করেন এবং জামেয়া কোরআনিয়া লালবাগ মাদ্রাসা থেকে দাওরায়ে হাদীস সম্পন্ন করেন। এরপর পাবনা জামেয়া আশরাফিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা শুরু করেন। পরবর্তীতে দৌলতপুরের ইসলামপুর মাদ্রাসা ও ভররা মকবুল উলুম মাদ্রাসায় দীর্ঘ দিন শিক্ষকতা করেন।

তিনি ঘিওর বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব ছিলেন। এছাড়া কুস্তা জামেয়া আশরাফুল উলুম মাদ্রাসা, হিজুলিয়া হিলফুল ফুজুল মাদ্রাসা ও ঘিওর উম্মে সালমা মহিলা মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন।

মাওলানা ফখরুদ্দীনের ইন্তেকালে মানিকগঞ্জ-১ আসন সংসদ সদস্য এএম নাঈমুর রহমান দুর্জয়, উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান হাবিব, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হামিদুর রহমান, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আমিনুর রহমান, দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম রাজা, ঘিওর সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোঃ ইউনুছ আলীসহ বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেণি পেশার নেতৃবৃন্দ গভীর শোক এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।