পাটুরিয়া ঘাটে হয়রানী রোধে পুলিশ সুপারের নানা পদক্ষেপ

পাটুরিয়া ঘাটে হয়রানী রোধে পুলিশ সুপারের নানা পদক্ষেপ

স্টাফ রিপোর্টার :

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশ পথ মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরি ঘাটে নিত্য দিনের যানজট নিরশনসহ যাত্রীসাধারণের নির্বিঘ্ন যাতায়াত ও হয়রানী রোধে পুলিশ সুপার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ ) সকালে মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার গোলাম আজাদ খান পাটুরিয়া ফেরি ঘাট পরিদর্শনে এসে ঘাট সংশ্লিষ্টদের নানা দিক নির্দেশনা দেন। এ সময় শিবালয় সার্কেলের সদ্যযোগদানকৃত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরজাহান লাবনী, শিবালয় থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহিন উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, গুরুত্বপর্ণ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি-লঞ্চে পারাপারে বিভিন্ন পরিবহন শ্রমিক ও সাধারণ যাত্রীদের নানাবিধি হয়রানীর শিকার হতে হয়। এছাড়া ফেরি পারের জন্য আসা বিভিন্ন যানবাহন সৃষ্ট যানজটে আটকা পড়ে ঘাট এলাকায় ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষায় থাকতে হয়। আটকে পড়া এসকল পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীদের দুর্ভোগ লাগব ও সার্বিক নিরাপত্তায় পুলিশ সদস্যদেরকেও চরম বেগ পেতে হয়। বিশেষ করে ঈদ ও বিভিন্ন উৎসবে ঘাটের পরিস্থিতি হয় আরও নাজুক। তাই নির্বিঘ্ন যাতায়াত ও হয়রানী রোধে মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশ অগ্রীম প্রস্ততি নিচ্ছেন।

ঘাট পরিদর্শনে এসে পুলিশ সুপার জানান, আসন্ন ঈদ উপলক্ষে ঘাট এলাকার সার্বিক আইন শৃঙ্খলা রক্ষা ও যাত্রী সাধারনের হয়রানী রোধে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনসহ বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এ কাজে পুলিশকে আরো সক্রিয় থাকতে বলা হয়েছে। যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে পর্যাপ্ত সংখ্যক ফেরি-লঞ্চ, ঘাটের পন্টুন প্রস্তুতসহ নৌ পথের নাব্যতা বজায় রাখতে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে সুপারিশ করা হয়েছে।

এছাড়া, ফেরির বুকিং কাউন্টারে দালালী, ফেরিতে জুয়া, ছিনতাই, হোটেল রেস্তোরায় বাশি-পঁচা খাবার পরিবেশনসহ ঘাট এলাকায় অপরাধের সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে তিনি জানান।