মানিকগঞ্জে জাতীয় কবি পত্নী প্রমীলার স্মৃতিবিজড়িত বাড়ি সংরক্ষণ দাবীতে মানববন্ধন

মানিকগঞ্জে জাতীয় কবি পত্নী প্রমীলার স্মৃতিবিজড়িত বাড়ি সংরক্ষণ দাবীতে মানববন্ধন

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট :

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এবং তাঁর পত্নী প্রমীলা নজরুলের স্মৃতিবিজড়িত মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার তেওতা গ্রামের বাড়ি সংরক্ষণ দাবীতে মানিকগঞ্জে মানববন্ধন হয়েছে। প্রমীলা-নজরুল স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদ ও বাঁশরী নামের দুটি সংগঠন সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা শহরের মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাব চত্ত্বরে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

প্রমীলার প্রথম নজরুল-প্রমীলার স্মৃতিধন্য এই বাড়িটি সংরক্ষণ করে সেখানে নজরুল-প্রমীলা পর্যটন কেন্দ্র, নজরুল-প্রমীলা গবেষণা কেন্দ্র, নজরুল-প্রমীলা স্মৃতি পাঠাগার, নজরুল-প্রমীলা জাদুঘর প্রতিষ্ঠার দাবীও জানান তারা এবং জেলা প্রশাসকের কাছে একটি স্মারকলিপিও দেন তারা। জেলা প্রশাসকের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সানোয়ারুল হক।

প্রমীলা-নজরুল স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদের সভাপতি মিয়াজান কবীরের সভাপতিত্বে এবং সাংগঠনকি সম্পাদক টিমুনী খান রীনোর পরিচালনায় ঘন্টাব্যাপী মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য প্রকৌশলী এবিএম আনোয়ারুল হক, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) জেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আবুল ইসলাম শিকদার, জাতীয় সমাতান্ত্রিক দল জাসদ জেলা শাখার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আফজাল হোসেন খান জকি, সাধারণ সম্পাদক আসলাম খান বাবু, জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি দীপক কুমার ঘোষ, অনলাইন প্রেস ইনস্টিটিটের প্রতিষ্ঠাতা, সাংবাদিক ও কলামিষ্ট মোমিন মেহেদী, আর্ন্তজাতিক নজরুল চর্চা কেন্দ্রের গবেষণা সচিব কৃষিবিদ রফিকুল ইসলাম চৌধূরী, প্রমীলা-নজরুল স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি মসলেহ উদ্দিন খান মজলিশ, বাঁশরী’র উপ-পরিচালক মাহবুবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা রেখা রাণী গুণ, নজরুল-প্রমিলা পরিষদ জেলা কমিটির সভাপতি মোজাম্মেল হোসেন খান বাবর, অভিনয় শিল্পী তাপস সরকার, নারী নেত্রী খন্দকার জিনাতুন্নেছো মৌসুমী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এবং তাঁর পত্নী প্রমীলা নজরুলের স্মৃতিবিজড়িত মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার তেওতা গ্রামের বাড়িটি এক শ্রেণীর স্বার্থান্বেষী মহলের চক্রান্তে বেহাত হতে চলেছে। কবিপত্নী আশালতা সেন ওরফে দোলন দেবী দুলি ওরফে প্রমীলা নজরুলের জন্মভিটা তেওতার এই বসতবাড়িটি সংরক্ষণ করার দাবী জানান তারা। প্রমীলা নজরুল ১৯০৮ সালে ১০মে এই তেওতা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। এই গ্রামে তাঁর শৈশব ও কৈশোর কেটেছে। প্রমীলার বাবা বসন্ত কুমার সেনের মৃত্যুর পর তাঁর মা গিরিবালার সঙ্গে কাকা ইন্দ্রকুমার সেনের চাকরিস্থল কুমিল্লার কান্দিরপাড়ের বাসায় অবস্থান করেন। সেখানেই কবির সাথে প্রমীলার প্রথম পরিচয় ঘটে।

উল্লেখ্য যে, প্রমীলার সঙ্গের কবির বিয়ের আগে ও পরে কবি নজরুল মানিকগঞ্জ জেলা শহরে এবং তেওতার বাড়িতে অনেকবার এসেছেন। কবির লেখা ’ছোট হিটলার’ কবিতায় ফুটে উঠেছে তেওতার প্রতিচ্ছবি। আর ‘হারা’ ছেলের চিঠি’ নামক ছোটগল্পে মনের মাধুরী মিশিয়ে কবি এঁকেছেন তেওতার চিত্রগল্প। যমুনার পাড়ে তেওতা গ্রামের তরুর ছায়ায় কবি নজরুল ঘুরে ফিরেছেন পথে প্রান্তরে। এই গ্রামের ধুলোমাটিতে বেড়ে উঠেছেন প্রমীলা। নজরুল-প্রমীলার জন্মভিটা আজ তীর্থভূমিতে পরিণত হয়েছে।