মানিকগঞ্জে ভর্তুকি মূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের নিকট টিসিবির পণ্য বিক্রি

মানিকগঞ্জে ভর্তুকি মূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের নিকট টিসিবির পণ্য বিক্রি

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট :

আসন্ন রমজান উপলক্ষে মানিকগঞ্জে ৮২ হাজার ৯০৪জন উপকারভোগীর মাঝে ভর্তুকি মূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের নিকট টিসিবির (ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ) নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি করা হবে। ইতোমধ্যে ফ্যামিলি কার্ড প্রস্তুত করে জন প্রতিনিধিদের মাধ্যমে উপকারভোগীদের হাতে পৌছে দেয়া হয়েছে।

শনিবার (১৯ মার্চ) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে টিসিবির উপকারভোগী বাছাই ও পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে বিক্রয় সংক্রান্ত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

এ সময় স্থানীয় সরকার শাখার উপ-পরিচালক মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সানোয়ারুল হক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) সুক্লা সরকার, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মানিকগঞ্জে সরকারিভাবে করোনাকালীন সময়ের করা ডাটাবেজের তথ্য অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী কতৃক নগদ সহায়তা প্রদান করা হয়েছিল ৩৮ হাজার ৬১৯ জনকে। পরবর্তীতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের তত্বাবধান এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করে নতুন ৪৪ হাজার ২৮৫জনসহ ৮২ হাজার৯০৪ জন উপকারভোগী বাছাই করা হয়েছে।

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে উন্মুক্ত বিভিন্ন প্রশ্নের আলোচনা থেকে জানাগেছে, ফ্যামিলি কার্ড পাওয়া পরিবারটি প্রতি মাসে দুবার টিসিবির পণ্য উত্তোলণ করতে পারবে। প্রথম পর্ব শুরু হবে ২০ মার্চ থেকে শুরু হয়ে ৩০ মার্চ পর্যন্ত এবং দ্বিতীয় পর্ব চলবে ৩-২০ এপ্রিল পর্যন্ত। এই সময়ের ভিতর সকল উপকারভোগীকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ অথবা পৌরসভার নির্দিষ্ট ভ্যানু থেকে টিসিবি পণ্য দেওয়া হবে।
জেলায় ফ্যমিলি কার্ডের বিপরীতে টিসিবি পণ্য দেয়ার প্রথম দিনে মানিকগঞ্জ পৌরসভায় ৫৭৫ জন, সিংগাইর পৌরসভায় ৮৯৪ জন, সিংগাইর উপজেলায় ৬৭৮ জন, সাটুরিয়া উপজেলায় ৫৫৫ জন, শিবালয় উপজেলায় ৩৭৮ জন, ঘিওর উপজেলায় ২৫০ জন, দৌলতপুর উপজেলায় ৬৬৩ জন এবং হরিরামপুর উপজেলায় ৮৯৫ জনসহ মোট ৬ হাজার ৩৫২ জনকে টিসিবি পণ্য দেওয়া হবে।

পণ্যগুলো হচ্চে প্রতি লিটার ১১০ টাকা দরে ২ লিটার সয়াবিন তেল, ৫৫ টাকা দরে ২ কেজি চিনি, ৬৫ টাকা দরে ২ কেজি মসুর ডাল, ৫০ টাকা দরে ২ কেজি ছোলা।