শিবালয়ে এজিএস হাই স্কুল শিক্ষক বরখাস্তের নোটিশে তোলপাড়

শিবালয়ে এজিএস হাই স্কুল শিক্ষক বরখাস্তের নোটিশে তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার :

শিবালয় উপজেলা কেন্দ্রীয় আব্দুল গণি সরকার-এজিএস উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (গণিত) মো. রফিকুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্তের নোটিশ দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে শিক্ষক, অভিভাবক-শিক্ষার্থী ও সচেতন মহলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, গত ২ জুলাই শনিবার বেলা ৪টার দিকে রফিকুল ইসলাম প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষে তার উপর অতর্কিত হামলা করেছেন-মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। ৭ দিনে মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. সালাহ্ উদ্দিন সরকার নোটিশ দেন। ২৯ জুলাই ইস্যুকত পরবর্তী চিঠিতে রফিকুলকে সাময়িক বরখাস্তের নোটিশ দেয়া হয়।

এ বিষয়ে সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হীন উদ্দেশ্যে দীর্ঘ যাবৎ আমার বেতন-ভাতা ও ইনক্রিমেন্ট বন্ধ রেখেছেন। তা নিয়ে ঐ তারিখে অনুরোধ করতে গেলে তিনি আমার উপর চড়াও হন। উপস্থিত শিক্ষক ও অন্যরা এগিয়ে এলে আমি রক্ষা পাই। তা সত্ত্বেও প্রধান শিক্ষক মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ এনে আমাকে হেয়প্রতিপন্ন ও হয়রাণির উদ্দেশ্যে বর্তমান এডহক কমিটির সভাপতিকে ভুল বুঝিয়ে সাময়িক বরখাস্তের নোটিশ দেন।

উল্লেখ্য, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির এডহক বা অন্তর্বর্তী কমিটি কোন শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ, বরখাস্ত বা অর্থ ব্যয়সহ নিয়ম বহির্ভূত কর্মকা- করতে পারেন না। শিক্ষক-কর্মচারীর এমপিও সীটে স্বাক্ষর ও নিয়ম মাফিক কিছু কাজ করতে পারেন। অথচ, আমাকে দেয়া কারণ দর্শানোর নোটিশে সভাপতির স্বাক্ষরে ও বিদ্যালয়ের প্যাডে তারিখ পর্যন্ত উল্লেখ না করে বে-আইনীভাবে চিঠি ইস্যু করা হয়েছে।