অপরাধ দমনে আরিচা-পাটুরিয়া ঘাট নিরাপত্তার চাদরে ডাকা

শহিদুল ইসলাম ॥
আসন্ন ঈদে অপরাধ দমনে আরিচা ও পাটুরিয়া ঘাট এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ডাকা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বারবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ড থেকে পাটুরিয়া ফেরি ঘাট পর্যন্ত বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ-র‌্যাবসহ আইনশৃংখলা বাহিনীর ৫ শতাধিক সদস্য নিয়োজিত থাকবে। মহাসড়কে দুর্ঘটনা রোধে নসিমন-করিমন,ভটভটি, ইজিবাইক, মাহিন্দ্র এবং রাতের বেলায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি-লঞ্চ ব্যতিত পণ্যবাহী জাহাজ, বালুবাহী বাল্কহেড, মাছ ধরার নৌকা ইত্যাদি চলাচল বন্ধ থাকবে। এছাড়া, ঈদের আগে-পরে ৬দিন পাটুরিয়া রুটে ফেরিতে পন্যবাহী ট্রাক-লড়ি পারাপার বন্ধ রাখা হবে। মলম-অজ্ঞান পার্টি, ছিনতাইসহ নানা অপরাধ দমনে পাটুরিয়া ঘাট এলাকাকে সিসি ক্যামেরার নিয়ন্ত্র আনা হয়েছে।
ঈদ উপলক্ষে মানিকগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে জেলার সার্বিক আইনশৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত সদস্যদের ব্রিফিং শেষে পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম সাংবাদিকদের উপরোক্ত বিষয়ে অবহিত করেন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন আহম্মেদ, বিশেষ শাখার সহকারী পুলিশ সুপার হামিদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। সভায় ঈদে ঘরমুখী মানুষের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে গুরুত্বারুপ করা হয়।
পুলিশ সুপার নিরাপত্তায় নিয়োজিত সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, পুলিশ জনগনের বন্ধু। জনগনের নিরাপত্তায় আমাদের কাজ করতে হবে। কারোও সাথে র্দুব্যবহার করা চলবে না। এ রুটে যাতায়াতকারী যাত্রীদের সাথে বন্ধুসুলভ আচরণ করতে হবে। যাত্রীদের যাত্রা নির্বিঘœ করতে সহায়তা দিতে হবে। তবেই সাধারণ মানুষের কাছে পুলিশের ভাবমূর্তি আরোও উজ্জল হবে।
ব্রিফিং শেষে শতাধিক গ্রাম পুলিশের হাতে ঈদ উপহার তুলে দেন পুলিশ সুপার।