আরিচা-কাজিরহাট রুটে ফেরি সার্ভিস পুনরায় চালু

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট ॥

দীর্ঘ প্রায় দু’দশক পর পুণরায় আরিচা-কাজিরহাট রুটে চালু হয়েছে বহুকাঙ্খিত ফেরি সার্ভিস।

শনিবার সকালে নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী আনুষ্ঠানিকভাবে এ সার্ভিস উদ্বোধন করেন। এসময় মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য এএম নাঈমুর রহমান দুর্জয়, ফেরি সেক্টর বিআইডব্লিউটিসি চেয়ারম্যান সৈয়দ মোঃ তাজুল ইসলাম, বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট গোলা মহীউদ্দীন, শিবালয় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান খান জানু, ইউএনও এবিএম রুহুল আমিন রিমনসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন কালে নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশ এখন উন্নয়নের পথে এগিয়ে চলছে। বর্তমানে সার্বিক যোগাযোগ ব্যবস্থায় আমল পরিবর্তন এসেছে। রাজধানী ঢাকার সাথে দেশের উত্তরাঞ্চলের ২৮ জেলার মানুষের যোগাযোগ সহজতর ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির লক্ষ্যে পুনরায় আরিচা-কাজিরহাট নৌরুট চালু হচ্ছে। এতে যাত্রী ও যানবাহন শ্রমিকদের প্রত্যাশা পূরন হয়েছে।

আগামী শুস্ক মওসুমে যমুনার নাব্যতা সঙ্কটে এরুট চালু রাখা আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে পড়লেও ড্রেজিং কার্যক্রমের মাধ্যমে তা মোকাবেলা করা হবে।
উদ্বোধনী ট্রিপ হিসেবে ‘বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান’ নামক রো-রো ফেরি ১৫টি মালবোঝাই ট্রাক নিয়ে আরিচা থেকে মাত্র দেড় ঘন্টায় কাজিরহাটে পৌছায়।

জানা গেছে, ১৯৯৭ সালের ২৩ জুন যমুনায় বঙ্গবন্ধু সেতু চালু হলে বন্ধ হয়ে যায় আরিচা-নগরবাড়ি (কাজিরহাট) রুটের ফেরি সার্ভিস। এর পর ২০০২ সালের ১২ মার্চ আরিচা থেকে ৭ কিলোমিটার ভাটিতে পাটুরিয়ায় স্থানান্তর হয় ফেরি ঘাট। পাটুরিয়া থেকে কাজিরহাট রুটে প্রায় ২২ কিলোমিটার দীর্ঘ নৌ-পথে কিছুদিন ফেরি সার্ভিস চালু থাকলেও অনিবার্য কারণে তা বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, নৌ প্রতিমন্ত্রী আরিচায় উদ্বোধনী ফলক উম্মোচন শেষে পাবনার কাজিরহাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত সূধি সমাবেশে যোগদানের জন্য ‘বেগম রোকেয়া’ নামক নতুন ফেরি যোগে রওয়ানা দেন।