বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক পেল সিসিডিবি শিবালয় ফার্মার্স গ্রুপ

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট ॥
মানিকগঞ্জের শিবালয় কৃষক-কৃষানি সংগঠন সিসিডিবি শিবালয় ফার্মার্স গ্রুপ এন্টারপ্রাইজ “বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক” প্রাপ্তির গৌরব অর্জন করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে পদক গ্রহণ করেন সংগঠনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আমজাদ হোসেন।
মানিকগঞ্জের শিবালয় সিসিডিবি শিবালয় ফার্মার্স গ্রুপ এন্টারপ্রাইজ মূলত একটি কৃষক-কৃষানি সংগঠন। ২০০২ সালে সংগঠনটির যাত্রাশুরু। সংগঠনটিতে প্রায় ১.২০০ কৃষক-কৃষানির পরিবারের অংশীদারিত্ব আছে, যার মধ্যে ৯৯০ জনই প্রান্তিক কৃষানি। “বীজ কৃষকের অধিকার”Ñএই মূলমন্ত্র ধারণ ক’রে কৃষকের বীজ কৃষকরাই উৎপাদন, সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিপণন করেন, যার ফলে কৃষকরা তাদের হাতের কাছেই গুণগত মানসম্পন্ন বীজ পান এবং নি¤œমানের বীজ প্রতারণার হাত থেকে কৃষক-কৃষানিরা মুক্তি পান। সেই সাথে বীজ কোম্পানিগুলোর একচেটিয়া ব্যবসায়িক আগ্রাসনের কবল থেকে কৃষক-কৃষানিরা মুক্ত থাকেন।

সংগঠনটি তৈরিতে যারা সাংগঠনিক, আইনি এবং প্রযুক্তিগত সহায়তা দিয়েছেন, তাদের মধ্যে বেসরকারি সাহায্য সংস্থা সিসিডিবি (খ্রীষ্টিয়ান কমিশন ফর ডেভেলপমেন্ট ইন বাংলাদেশ) এবং কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ অন্যতম। এছাড়া কৃষক-কৃষানি সংগঠনটিকে আরো যারা বিভিন্ন পর্যায়ে সহায়তা ক’রে আসছে, তাদের মধ্যে রয়েছে; বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, আন্তর্জাতিক গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ কৃষি মন্ত্রণালয়ের বীজ উইং, বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সী এবং কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ।

এই কৃষক-কৃষানি সংগঠনটি মূলত “চাষীর হাসি” ব্রান্ডে বীজ উৎপাদন, সংগ্রহ, সংরক্ষণ এবং বিপণন ক’রে থাকে। সংগঠনটির এ যাবৎ কালের উৎপাদিত ফসলের গুণগত বীজগুলো হচ্ছে: ধান, গম, আলু, সরিষা এবং ভুট্টা। সংগঠনটি বর্তমানে বাংলাদেশের মানিকগঞ্জ, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, বরগুনা, মোরলগঞ্জ, শ্যামনগর, বাগেরহাট, যশোহর এবং বগুড়ায় তাদের উৎপাদিত গুণগত মানসম্পন্ন বিভিন্ন বীজ “চাষীর হাসি” ব্রান্ডে বিপণন করছে।

বিগত ১৬ বছর যাবৎ কৃষক-কৃষানি সংগঠনটি বীজ উৎপাদনের পাশাপাশি বর্তমান সময়ের জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিভিন্ন প্রযুক্তি ও জাত সম্প্রসারণে সিসিডিবি এবং কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের সাথে মাঠ-পর্যায়ে কাজ ক’রে যাচ্ছে। যেমন  জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ধানের শুকনা বীজতলা তৈরি প্রযুক্তি প্রদর্শনী, কম পানি দিয়ে ধান চাষ প্রযুক্তি প্রদর্শনী, ধকল সহনশীল গভীর পানির স্থানীয় ধানের জাত হিজলদিঘা, মোল্লাদিঘা সংরক্ষণ। জিংক সমৃদ্ধ ধান চাষ প্রযুক্তি প্রদর্শনী এবং লবণাক্ত ও খরা সহনশীল বিভিন্ন জাতের ধানের প্রযুক্তি প্রদর্শনী এবং বীজ উৎপাদন-বিপণন ক’রে চলেছে। ইতোমধ্যে কৃষক সংগঠনটির বিভিন্ন কার্যক্রম অসংখ্যবার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিকস মিডিয়ায় স্থান পেয়েছে। সংগঠনটি সিসিডিবি’র ৪০-বছর পূর্তিতে “শ্রেষ্ঠ কৃষক সংগঠনে”র মর্যাদা লাভ করেছে।

উক্ত কৃষক-কৃষানি সংগঠনটি গুণগত মানসম্পন্ন বীজ উৎপাদন, সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিপণন এবং খাদ্য নিরাপত্তা ও জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও সরকারের বিভিন্ন কৃষি বিভাগ এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সিসিডিবি’র সহায়তায় তাদের কার্যক্রম পরিচালনা ক’রে যাচ্ছে।

এই কৃষক-কৃষানি সংগঠন সিসিডিবি শিবালয় ফার্মার্স গ্রুপ এন্টারপ্রাইজ, শিবালয়, মানিকগঞ্জ “বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক” প্রাপ্তির গৌরব অর্জন করেছে। তাদের এই অর্জন এদেশের কৃষি ও মাটির প্রতি তাদের দীর্ঘদিনের শ্রম এবং নিবেদনের ফসল। তাদের এই প্রাপ্তি আমাদের দেশের সকল কৃষান-কৃষানির শ্রম ও অবদানকে গৌরবান্বিত করেছে। তাদের এই এগিয়ে-চলার ক্ষেত্রে “বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক” প্রাপ্তি একটি মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে এবং জনগণের মাঝে তাদের কার্যক্রমে স্বীকৃতি প্রদান করবে বলে আশা করা যায়।