শিবালয়ের আলোকদিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

শহিদুল ইসলাম !
শিবালয় উপজেলার আলোকদিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি-এসএমসি গঠন ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের কর্মকান্ড নিয়ে নানা অভিযোগ পাওয়া গেছে। সচেতন অভিভাবক ও সংশ্লিষ্ট মহল বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করলেও কোন প্রতিকার না হওয়ায় বিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ ক্রমেই অবনতি হচ্ছে।
ভূক্তভোগীরা জানায়, ২০০৯ সালে এ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে সুরাইয়া সিদ্দিকা যোগদান করেন। প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য থাকায় তিনি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। কয়েকবছর পর তিনি তাঁর স্বামীর কর্মস্থলের সুবিধার্থে ঢাকার ধামরাইয়ে বদলী হন। কিছুদিন যেতে না যেতেই পূনরায় আলোকদিয়ায় ফিরে আসেন। প্রায় ৯ বছর যাবৎ ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে থাকাবস্থায় তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ উঠে। অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত হলেও কার্যক্রর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। ফলে, ক্ষমতার অপব্যবহার, স্বজন-প্রীতি ও অনিয়ম-দুর্নীতির কারনে জনমনে নানা অসন্তোষ সৃষ্টি হওয়ায় স্থানীয় শিক্ষার্থীর সংখ্যা ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সাবেরা সুলতানার সাথে সাংবাদিকদের কথা হলে তিনি জানান, এ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ পূরনে ইতিপূর্বে শিক্ষক নিয়োগ দিলেও কেউ যোগদান করেনি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে নতুন কমিটি গঠনের প্রস্তাব স্থগিত রয়েছে। এছাড়া, বিতর্কিত কার্যকলাপের দরুণ ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুরাইয়া সিদ্দিকার বিরুদ্ধে অচিরেই প্রেষনে বদলীসহ কার্য়করী ব্যবস্থা নেয়া হবে।