শিবালয়ে নানা আয়োজনে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালিত

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট ॥

নানা আয়োজনে শিবালয়ে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও জাতীয় দিবস পালন করা হয়। সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক, দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয় গন্যমান্যব্যক্তিবর্গ এ আয়োজনে অংশ নেন।

৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিনের শুভ সূচনা করা হয়। এরপর উপজেলা কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন, শান্তির প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়ানো, স্বাস্থ্য বিধি মেনে শিশু-কিশোর সমাবেশ, আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও সালাম গ্রহণ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, যদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহিদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা, মসজিদ, মন্দির ও গীর্জায় বিশেষ প্রার্থনা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক নেতৃত্ব এবং সুবর্ণজয়ন্তীতে দেশের উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে মানিকগঞ্জ-১ আসনে সংসদ সদস্য এ এম নাঈমুর রহমান দুর্জয় এমপি’র পক্ষে পুস্পস্তবক অর্পন করেন স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মীগণ। এছাড়া, শিবালয় উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামীলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, ছাত্রলীগ, অফিসার্স ক্লাব, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি, উপজেলা প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পক্ষে শহিদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা, যদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহিদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম রুহুল আমিন রিমন। শিবালয় উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউর রহমান খান জানু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মিরাজ হোসেন লালন ফকির, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুনা আক্তার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আসিফ ইকবার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারাশিদ বিন এনাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ করিব প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি বিএম রুহুল আমিন রিমন বলেন, স্বাধীনাতার ৫০ বছর পূর্তিতে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল-স্বীকৃতি পেয়েছে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে। জাতির পিতা বঙ্গবনন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে এ অর্জন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এবং আমাদের জন্য গৌরব ও আনন্দের।

বিকালে মহিলাদের অংশগ্রহণে ক্রীড়া অনুষ্ঠান, প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতায় উপজেলা পরিষদ একাদশ ও সুশিল সমাজ একাদশ অংশ নেন।