শিবালয়ে সারা বছর অনুপস্থিত থেকে সেরা শিক্ষক হলেন সমির কুমার দাস!

মানিকগঞ্জ রিপোর্ট ॥
মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার নয়াবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিতর্কিত সহকারী শিক্ষক সারা বছর ছুটি কাটিয়ে বর্ষসেরা শিক্ষকের ক্রেস্ট পেলেন। ২৪ জানুয়ারি ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষায় বৃত্তি প্রাপ্তদের সম্বর্ধনা উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ পুরস্কার প্রদান করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল হোসেন। সেরা শিক্ষক পুরস্কার প্রদানে বিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ অন্যান্যদের মাঝে দারুন ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
জানা গেছে, ২০১৮ সালে সমির কুমার দাস বিএড ট্রেনিং করার জন্য সারা বছর ছুটিতে ছিলেন। বিদ্যালয়ে কমিটি না থাকায় প্রধান শিক্ষকের একক সিদ্ধান্তে ২০১৮ সালের সেরা শিক্ষক হন সমির কুমার দাস বিকাশ। এছাড়া, অন্যান্য বর্ষসেরা শিক্ষক হলেন তপছের উদ্দিন ও আব্দুস সালাম।
সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান মোল্লা জানান, সমির কুমার দাস ২০১৮ সালের সারা বছর ছুটিতে ছিলেন। কি করে সে বর্ষসেরা শিক্ষক হলেন আমার জানা নেই? সারা বছর নিয়মিত যেসকল শিক্ষক পাঠদান করেছেন তাদের মধ্য থেকে কাউকে সেরা শিক্ষক বাছাই করা উচিৎ ছিল।
উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি মো. রোকন উদ্দিন রিপন বলেন, সারা বছর ছুটিতে থাকা শিক্ষক কীভাবে সেরা শিক্ষক হন? এ সিদ্ধান্ত প্রধান শিক্ষকের মনগড়া।
সহকারী শিক্ষক সমির কুমার দাস বিকাশ জানান, বর্ষসেরা শিক্ষক বাছাই কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব। এ বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করব না। ২০১৮ সাল আমি ছুটিতে থাকলেও আমি ক্লাস নিয়েছি। ২০১৮ সালে আমাদের বিদ্যালয় থেকে ১৩ জান ছাত্র-ছাত্রী বৃত্তি পেয়েছে। ভালো ফলাফলের কারণে বিজ্ঞান শিক্ষক হিসেবে আমাকে এ পুরস্কার দেয়া হয়েছে। এছাড়া, আমার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দেয়ার কারণে আমি কিছুদিন বিদ্যালয়ে যাইনি।