শিবালয় সদরউদ্দিন কলেজে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট ॥
শিবালয় সদরউদ্দিন ডিগ্রী কলেজে আর্থিক আয়-ব্যয়ে অসামঞ্জস্যপূর্ণ লেনদেনের অভিযোগে অধিকতর যাচাই-বাছাই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মানিকগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শহিদুল ইসলাম সোমবার এ যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করেন।
জানা গেছে, কলেজ শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণসহ বিভিন্ন খাত থেকে প্রাপ্ত অর্থ নির্ধারিত ব্যাংক হিসেবে জমা রাখার নিয়ম রয়েছে। বিভিন্ন উৎস থেকে প্রাপ্ত অর্থ ব্যাংকে জমা না রেখে কয়েকজন শিক্ষক তা হস্তগত করেন।
উল্লেখ্য, গত জুন মাসে মামলা সংক্রান্ত কারণে অধ্যক্ষ ড. বাসুদেব কুমার দে শিকদাররের পরিবর্তে সহকারী অধ্যাপক আ ন ম বজলুর রশিদকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেয়া হয়। অভিযোগ উঠে, বজলুর রশিদ দায়িত্বকালে কলেজ ফান্ডের টাকা যথাযথ প্রক্রিয়ায় না রেখে ও বিল-ভাউচারে গড়মিল দেখিয়ে আর্থিক ক্ষতিসাধন করেছেন। ইতোমধ্যে অধ্যক্ষ বাসুদেব স্বপদে বহাল হন। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বজলুর রশিদের কার্যকালে বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতির বিষয়ে কলেজ পর্ষদ ১১ সদস্যের নিরিক্ষা কমিটি গঠন করে। এডহক কমিটির সভাপতি মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক এ বিষয়ে অধিকতর যাচাই-বাছাইয়ের নির্দেশ প্রদান করেন।
আ ন ম বজলুর রশিদ জানান, দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করেছি। আর্থিক লেনদেনে কোন গড়মিলের বিষয়ে আমি জানিনা। স্টাফ কাউন্সিল সদস্যদের নিয়ে আয়-ব্যয় হিসেব পরিচালনা করা হয়েছে।