ষড়যন্ত্রকারীরা কখনও সফল হয় না

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট ॥
শিবালয় উপজেলা পরিষদের সুযোগ্য চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী আকবরের বিরুদ্ধে একটি কুচক্রী মহল য়ড়যন্ত্র করলেও কখনই সফল হতে দেবেনা এ উপজেলার সাধরণ মানুষ।
জানা গেছে, মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী আকবর নিষ্ঠার সাথে উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারার সাথে তাল মিলিয়ে এ উপজেলার উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। নিজে তদারকি করছেন বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রামের মানুষের সাথে আলাপ ও যোগাযোগের মাধ্যমে সরকারী বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ দেখা শোনা করছেন তিনি। বিগত কয়েক বছরে এলাকার উন্নয়ন এর স্বাক্ষ বহন করে।
জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবস পালনে সর্বাগ্রে দেখা যায় তাকে। ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিভিন্ন মসজিদ ও প্রতিষ্ঠানে অনুদান দিয়ে থাকেন।
এ উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধানসহ স্থানীয় অনেকেই বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আমাদের মানুষ, আমাদের ডাকে তিনি সব সময় সাড়াদেন এবং সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেন। এত ভলো উপজেলা চেয়ারম্যান আমরা আগে কখনো দেখিনি। কাছে না যেয়েও শুধুমাত্র মোবাইলে দাওয়াত করলেও তিনি সেই দাওয়াতে উপস্থিত হন। শিবালয় উপজেলার চেয়ারম্যান একজন নিরহংকারী সাদা মনের মানুষ। তিনি একজন উচ্চ শিক্ষিত গণতন্ত্র মনা রাজনীতিবিদ। কোন প্রতিষ্ঠান যে কোন অনুষ্ঠানে তাকে দাওয়াত করলে তিনি ছুটে যান সেখানে। এছাড়া ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানেও তাকে দেখা যায় ঐ সকল ব্যাক্তির নিজ পরিবারের সদস্যদের মত। যে কোন ব্যক্তির প্রয়োজন তিনি নিজে শ্রবন করেন এবং যথাশিঘ্র তা সমাধানে চেষ্টা করেন। এভাবে তিনি বর্তমানে শিবালয় উপজেলার প্রিয মানুষ হয়ে উঠেছেন। তিনি একজন আদর্শ উপজেলা চেয়ারম্যান।
কিন্তু, একটি কুচক্রী মহল এ উপজেলা থেকে ষ্ট্যান্ড রিলিজ হওয়া ইউএনও’র সাথে যোগসাজসী কায়দায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আশ্রয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে সুনাম ক্ষুন্ন করার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।
উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অফিস না করার অভিযোগ তোলেন। অথচ ঐ কুচক্রী মহল বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও পত্র পত্রিকা, মাসিক মিটিং ও অন্যান্য কাযক্রমে উপস্থিতি দেখছেন না কেন?
সরকারী গাড়ী ব্যাক্তিগত কাজে ব্যবহার করা হয় বলে অভিযোগ তোলেন। সরকার উপজেলা চেয়ারম্যানকে গাড়ী দিয়েছেন সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম তদারকী করার জন্য সাথে সাথে সরকারের ডাকে বিভিন্ন স্থানে প্রশিক্ষনেও উপস্থিত হওয়াও তার একটি কাজ।
উপজেলা চেয়ারম্যানদের গাড়ীর চালনা ও ব্যবহারের নীতিমালা অনুসরন করে চালানো হচ্ছে সে গাড়ী, কিন্তু সকল নিয়ম না জেনেও কেউ কেউ অভিযোগ তুলেছেন।

শিবালয় উপজেলা চেয়ারম্যান মানিকগঞ্জ টাইমসকে জানান, নিষ্ঠা ও সততার সাথে সরকারের উন্নয়ন কাজ তদারকিসহ মানুষের সাথে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ করে আসছি। কেউ মিথ্যা অভিযোগ করলে সেগুলো খতিয়ে দেখা দরকার। জনগনই প্রকৃত বিচারক।
একজন সৎ, কর্মঠ ও সদালাপী ভাল মানুষের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে তার সুনাম নষ্ট করার অপচেষ্টা করছেন। কুচক্রীদের অপচেষ্টা কখনই সফল হতে দেবেনা এ উপজেলার সাধারণ মানুষ।