হরিরামপুরে গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা আটক-১

মানিকগঞ্জ টাইমস রিপোর্ট

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে নাজমা বেগম (৪০) নামের এক গৃহবধূকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার সকালে জেলার হরিরামপুরের বাল্লা ইউনিয়নের সরফদিনগর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় নেয়ার পর দুপুর ১২টার দিকে মারা যান নাজমা।

নিহত নাজমা বেগম সরফদিনগর গ্রামের মোহাম্মদ ইসলাম সর্দারের স্ত্রী এবং তিন সন্তানের জননী।

হরিরামপুর থানা পুলিশ হত্যার অভিযোগে প্রতিবেশী রফিক উদ্দিন (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে। আটক রফিক হরিরামপুরের বাল্লা ইউনিয়নের সরফদিনগর গ্রামের শফি উদ্দিনের পুত্র।

এ ব্যাপারে নিহতের স্বামী ইসলাম সর্দার জানান, সকালে তিনি এবং তার স্ত্রী মরিচ তুলতে যাচ্ছিলেন। রাস্তায় পানি থাকায় তিনি নৌকায় এবং তার স্ত্রী ঘুর পথে হেঁটে মরিচ ক্ষেতে যাচ্ছিলেন। কিছুক্ষণ পরে তার ভাই মোশারফ হোসেন ও প্রতিবেশী শামীম চিৎকার করে জানান প্রতিবেশি রফিক তার স্ত্রীকে বাঁশ দিয়ে বেদম পেটাচ্ছেন।
মোশারফ এবং প্রতিবেশী শামিমের চিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসলে রফিককে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, এ সময় তার স্ত্রী নাজমা পানিতে পড়েছিল। তাদের বড়পুত্র রনি সর্দার ও স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় নাজমাকে অচেতন অবস্থায় মানিকগঞ্জ মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। নাজমার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। পরে পরিবারের লোকজন অ্যাম্বুলেন্সে করে দুপুর ১২টার দিকে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্স ও হাসাপাতালে ভর্তি করার কিছুক্ষণ পরেই নাজমাকে মৃত ঘোষণা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে হরিরামপুর থানার ওসি সৈয়দ মিজানুর ইসলাম জানান, এ ঘটনায় রফিককে পার্শ্ববর্তী শিবালয় থানার শিমুলিয়া ইউনিয়নের ফেচুয়াধারা থেকে দুপুর ২টার দিকে আটক করা হয়। মামলার প্রস্তুতি চলছে।