শিবালয়ে বিয়েতে রাজি না হওয়ায় কিশোরীকে হত্যার হুমকি

শিবালয়ে বিয়েতে রাজি না হওয়ায় কিশোরীকে হত্যার হুমকি

মোহাম্মদ ইউনুস আলী

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় মাত্র ১৩ বছরের এক কিশোরীকে কেটে নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকির অভিযোগ উঠেছে তার পিতার বিরুদ্ধে। এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনার খবর পেয়ে গতকাল সোমবার দুপুরে শিবালয় থানা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন ছুটে যান শিবালয়ের যমুনা নদীর দুর্গম আলোকদিয়া চরে।

প্রশাসনের হস্ত ক্ষেপে বাল্য বিয়ের অভিষাপ থেকে রক্ষা পান এ স্কুল শিক্ষার্থী। জানাযায়, শিবালয়ের তেওতা আলোকদিয়া চরের কুখ্যাত ডাকাত সর্দার জুলহাস মোল্লার বিবাহিত পুত্র সোলায়মনের (৩২) সাথে বিয়ের কথা হয় মোদী মোল্লার কিশোরী মেয়ের সাথে। কিশোরী এ বিয়েতে অসম্মতি জানালে ডাকাত সর্দারের ভয়ে কিশোরীর বাবা তাকে কেটে নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে স্থানীরা প্রশাসনকে অবহিত করে।

শিবালয় থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ফিরোজ কবির জানান, কিশোরীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপুর্বক বিয়ের আয়োজন করার খবরে উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা থানার অফিসার-ফোর্স নিয়ে দুর্গম আলোকদিয়া চরে মোদী মোল্লার বাড়িতে উপস্থি হই। মোদী মোল্লা ও তার কিশোরী কন্যাকে জিজ্ঞাসা বাদ করা হলে ঘটনার সত্যতা মিলে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন সুলতানা জানান, কিশোরীর ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত কোথায়ও তাকে বিয়ে দিবে না এমন শর্তে মুচলেকা প্রদান করেছে তার পিতা মোদী মোল্লা। এসময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বারসহ গন্যমানরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত কয়েকমাস আগে ডাকাত সর্দার জুলহাস তার পুত্রবধুকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে। পুনরায় ছেলেকে বিয়ের জন্য এ কিশোরীর প্রতি তার নজর পড়ে।